দিনশেষে অভিনয়ের মিথ্যে হাসিগুলো রাতের আঁধারে বড্ড কষ্ট দেয়। রাত গভীর হয়ে আসলেই সব কষ্টগুলো নিরবে আঘাত হানে। ধুকে ধুকে খায় আমার মতো হাজারো নিম্নমধ্যবিত্ত কে!
-ওভারব্রীজের উপর দাঁড়িয়ে আছি আমি। সন্ধার সূর্যটা বহু আগেই বাড়ি ফিরে গেছে, রাস্তার সোডিয়াম হলুদ বাতিগুলোও জ্বলে উঠেছে আলোকময় নগরীকে আরেকটু আলোকিত করে দিতে। এই সময় বাড়ি ফেরার তাড়া থাকে মানুষের,ফিরে যাওয়ার নিরব প্রতিযোগীতা যেন শুরু হয়ে যায়। ভীড় বাড়ে বাসে, এই যাত্রাবাড়ি,গুলিস্তান,মিরপুর,শ্যামলী,   ডাক হাঁকায় কন্ট্রাক্টাররা। আর যাত্রিদের ফিরে যাব...

‘এক থেকে দশের মধ্যে একটা সংখ্যা বলতে বললে বেশির ভাগ লোকে বলবে সাত, এক থেকে পাঁচের মধ্যে হলে তিন, আর ফুলের নাম বললে গোলাপ’। তোপসেকে বলেছিল ফেলুদা। সেরকমই, রবীন্দ্রসঙ্গীত বাদ দিয়ে বাংলা ও বাঙালির জনপ্রিয় সংস্কৃতির সঙ্গে জড়িত একটা ‘আইকনিক’ গান বা সুর বেছে নিতে বললে ‘মহিষাসুরমর্দিনী’র প্রিল্যুড, ‘গাঁয়ের বধূ’র পাশাপাশি উঠে আসবে ‘আহা কী আনন্দ আকাশে বাতাসে’ বা ফেলুদার থিম মিউজিক। অথচ চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ, লেখক সত্যজিৎ-এর ঔজ্জ্বল্যের আড়ালে প্রায় ঢাকাই পড়ে থাকেন সঙ্গীতকার সত্যজিৎ - গত ২মে শুরু হয়ে গ...

ভীষণ রকম বদলে গেছে সব!

আমার এ শহরে সুনসান নীরবতা

প্রশস্ত রাজপথে নেই কলরব।।

অলিতে-গলিতে নেই রিকশার শব্দ!

মিরপুর থেকে মতিঝিল,

নিজের নিঃশ্বাসেও চমকে উঠি, এমনই স্তব্ধ ।।

করোনাকালের ক্রান্তিতে মানুশের গন্ধমাখা এ শহরে,

হটাৎ থেমে যাওয়া যন্ত্রের আড়ালে,

ডেকে ওঠে এক সুকণ্ঠি পাখি, জনমানবহীন প্রান্তরে।।

এ শহরে আছে এমন পাখি জানিনি কখনও আগে !

ভীষণ ভয়ে বদলে গেছে সব, করোনাকালে;

আপাদমস্তক ভীষণ রকম নিরবতা আজ, শাহবাগে ।।

অনিন্দ্য ভুক্ত

অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ, নেতাজি মহাবিদ্যালয়, আরামবাগ

 সোমনাথ হাজরা  

গবেষক, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়

রাস্তাটা প্রথম বাতলেছিলেন জনৈক ব্রিটিশ অর্থনীতিবিদ, সারা পৃথিবী জুড়ে অর্থনীতির প্রাথমিক পড়ুয়ারাও যাঁকে চেনে জন মেইনার্ড কেইনস নামে। সেটা 1930এর দশকের একেবারে গোড়ার দিক। সারা পৃথিবী জুড়েই শুরু হয়েছে মন্দা। মন্দার বহর আর তার প্রকোপ  দেখে সবাই যাকে মহামন্দা বলে চিহ্নিত করতে শুরু করেছেন, চিন্তা করতে শুরু করেছেন পরিত্রাণের উপায় নিয়ে, সেই উপায় বাতলাতে গিয়েই রাস্তাটার কথা বলেন...

কি রেখে গেলো চৈতন্য আরোগ্য নিকেতনে ?

সলাজ ব্যস্ত কুঁড়ি

আগাম নিমন্ত্রণ

আসতে হবে সৎ পুস্তক হাতে

সীমিত যন্ত্রযানে

আর সেখানে অপ্রাসঙ্গিক আবাসনের আবাসিক

প্রহেলিকা উদ্বায়ী সম্পদের

উপচে পড়ে আতঙ্ক

কোষের নিম্নকক্ষে আতশকাচ

কি রেখে গেলো চৈতন্য আরোগ্য নিকেতনে ?

শেষ ট্রেনে কোষের শেষ নিমন্ত্রণ

আর অন্যথা কিছু নেই ।

    

জায়গাটা একটু অন্যরকম। আশপাশে তাকালে কোনো শপিং মল চোখে পড়ে না। মাল্টিপ্লেক্স চোখে পড়েনা। বড় বড় ফ্লেক্স ভিনাইলে লোম তোলা সুন্দরী মেয়েদের বিজ্ঞাপনের ছবি দেখতে পাওয়া যায় না। বেশ ঘন আম বাগান কাঁঠাল বাগান ফনি মনসার ঝোপ ঢোল কলমি জিকা গাছের জঙ্গল । মুখ গুলোও যেন একটু আলাদা। মাথায় তেল দেওয়া ঘন চুল। নিজের ছাঁচে দুখানা ভ্রু।  নাইটির উপর গামছা প্যাঁচানো। লুঙ্গি বা সস্তা দামের ফাটা জিন্স ফুট থেকে কেনা।  নাপিতের দোকান গুলিই রঙ চঙ করে নিয়েছে। লোকনাথ মা কালির ছবির ক্যালেন্ডারের নীচে ব্লিচ ফেসিয়াল...

পশ্চিমবঙ্গে জনস্বাস্থ্য আন্দোলনের চেনামুখ ডাঃসিদ্ধার্থ গুপ্ত ও ডাঃপুন্যব্রত গুণ।   বর্তমান সারা পৃথিবী জুড়ে যে কোভিড-১৯ এর মারণ বাসা। তার জেরে লকডাউন এবং করোনার অতিমারি। এই দুই অভিজ্ঞতাসম্পন্ন চিকিৎসক সাধারণ মানুষ কিংবা সমস্ত চিকিৎসকদের সতর্ক থাকতে বলেছেন।  

ডাঃ  গুপ্ত জানান ,তিন ভাবে পরীক্ষা করে নিতে হবে যেমন- ১.ব্যাকটেরিয়া  কিংবা ভাইরাস শরীর থেকে ডিডেকশন করতে হবে। আসলে যে কোনো ইনফেকশন ডিজিজই হলো ভাইরাস। তাই এই পদ্ধতিতে প্রথম পরীক্ষা করতে হবে। 

২.অ্যান্টিজেন যে বিপ্র...

26.04.2020

লকডাউন সময়ে কলকাতার দক্ষিণে  এক ছোট ব্যবসায়ীর দুর্দশার কথা  উল্লেখ করছি। বছর ত্রিশের ছেলেটি অনেক সংগ্রাম করে একটি ছোট জুতোর দোকান দাঁড় করায়। দুই ভাইয়ের একজন দাদাকে ব্যবসায় সাহায্য করে। বাবা ও মা, দুই ভাই আর বউ-ছেলে নিয়ে সাত জনের পরিবার। দোকানের আয়ে সংসার মোটামুটি চলে যাচ্ছিল। লকডাউন আয়ের পথ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু ছেলেটির মনের জোর অটুট ছিল।   ছেলেটির জীবনে বিপর্যয় নেমে আসে। ৬৫ বছরের মা করোনায় আক্রান্ত হয়। সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে, সেখানে জোটে অবহেলা। বাধ্য হয়ে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে মাকে। ই...

উট একটি পশুর নাম, যা আবার মরুভূমির জাহাজ বলেই পরিচিত। মরুভূমির বুকে ঘুরে বেড়াতে এই উট নামক প্রাণীটিই মানুষের সবথেকে বড় ভরসা। উটের একটা পবিত্র স্বভাব আছে। মরুভূমিতে বালিঝড় উঠলেই উট নাকি চোখ বন্ধ করে ফেলে। হয়তো এভাবেই সে বাইরের আক্রমণকে নস্যাৎ করতে চায়। উটকে মানুষ পোষ মানিয়েছে সম্ভবত হাজার সাতেক বছর আগে। আর পোষ-মানামানির পারস্পরিক ঘাত-প্রতিঘাতে মানুষও উটের কিছু স্বভাব রপ্ত করে ফেলেছে। যখন-তখন চোখ বন্ধ রাখার অভ্যাস তার মধ্যে অন্যতম।

প্রায়শই আমরা দেখি, অসুস্থ হলেও লোকে ডাক্তারের কাছে চট করে যেতে চায়...

this article has been re published here on courtsy of MONEY CONTROL in public interest 



 



MoneyControl   • Apr 24, 2020 08:56 PM IST


In an unprecedented decision, Franklin Templeton Mutual Fund has shut six of its open-ended debt funds, effective April 23.

The six schemes are as follows:
- Franklin India Low Duration Fund (FILDF),
- Franklin India Dynamic Accrual Fund,
- Franklin India Credit Risk Fund,
- Franklin India Short Term Income Plan,
- Franklin India Ultra Short Bond Fund, an...

অনিন্দ্য ভুক্ত

অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ, নেতাজি মহাবিদ্যালয়, আরামবাগ

 সোমনাথ হাজরা

গবেষক, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়

ক্রমশ চ‌ওড়া হচ্ছে করোনার থাবা। আশঙ্কিত, ত্রস্ত হয়ে উঠছে সারা বিশ্ব। তবে কিনা মানুষ মরতে মরতেও স্বপ্ন দেখে, পরিকল্পনা করে ভবিষ্যতের। আর সেই মনোভাব থেকেই করোনা থেকে বাঁচার লড়াই লড়তে লড়তেও মানুষ ভাবছে আগামী দিনে কি হবে। এই ভাবনার একটা বড় অংশ জুড়ে আছে রুটি-রুজির ভাবনা।

       একটা কথা সবাই জানে, বুঝতে খুব একটা অসুবিধাও হয় না, অর্থনীতির চাকা একটা ঘন্টা বন্ধ থাকলেও সমস্যা কত বড় হয়ে ওঠে।...

পথসভা শেষ। মাধবের কেমন হতাশ লাগছিল। লোকজন তেমন ভীড় করে শোনেনি। দোকান-বাজারের লোকজনের ক’জনই-বা শুনেছে বলা মুশকিল। মাধব বক্তা না। তবে বলা যায় তারই উদ্যোগে সভাটা হয়েছে। মাধবের এক বন্ধু মানবাধিকার-কর্মী, তাকে  ভয়ের বিরুদ্ধে কোনও কর্মসূচি নেওয়া যায় কি না ভাবতে বলেছিল। এবং তার ভাবনার কথাও জানিয়েছিল। মাধবের ভাবনা অনুযায়ী সভাটা হয়েছে। সাকুল্যে তারা দশ জন। এলাকার চার জন। বাইরে থেকে এসেছে ছ’ জন। বাইরের তিন জন ইতিমধ্যে চলে গেছে। আর তিন জন আজ এখানে থেকে যাবে। এলাকার দু’ জন ডেকরেটারসের ছেলেদের সহযোগিতা করছে।...

আজ প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ পর কি বলবেন তাই নিয়ে স্বাভাবিকভাবে কৌতূহলের শেষ নেই।  যতদূর জানা গেছে আলোচনার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী ঠিক করছেন দেশের ১৫ টি রাজ্যের ২৫ টি জেলায় যেখানে নতুন করে আর সংক্রমনের কোন খবর নেই সেগুলিকে সবুজ রঙে চিহ্নিত করে স্বাভাবিক জীবন যাত্রা শুরু করবার নির্দেশ দেবেন। একই ভাবে যে সমস্ত জেলায় এখনো সংক্রমণ  অল্প হলেও ছড়াচ্ছে , সেখানেই লকডাউন যেমন  ছিল তেমন ভাবেই চালু রাখা হবে। এই এলাকাকে হলুদ রঙে সতর্কিত এলাকা বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে। আর যেখানে ছড়িয়ে পড়েছে দ্রুত এই জায়গা গ...

প্রাককথনঃ ভারতের সংবিধানের মুখ্য রূপকার ডঃ বি আর আম্বেদকরের জন্ম দিন  ১৪ই এপ্রিল ১৮৯১ সাল। এবার তার। করোনার করু জনসমাগমে এই সময়ে বাধা হলেও সারা দেশের অযুত কোটি নিরন্ন ঘরে, রাস্তার পাশে, গাছের তলায় তথা বৃহত্তর গ্রামভারতে আর নিম্নশহর তথা বস্তির কোনে কোনে তার মূর্তি অথবা ছবিতে একজন দুজনের চেষ্টায় হলেও মালা উঠবে; স্বামী স্ত্রী-সন্তান মিলে জয় ভীম বলে শ্লোগান দেবেন ঘরের কোনে বসে এবং তারা বাবা সাহেব আম্বেদকরের অনুগামী বলেই করোনার দিনের সরকারী নির্দেশ সাধ্যমতো মানতেও চেষ্টা করবেন।না হলে তো তাদের প্রিয় ব...

   

পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার ময়নাগুড়ি শহরের পরিচিতি ডুয়ার্সের প্রবেশপথ হিসেবে।

করোনা পরবর্তী সময়ে লকডাউনের ফলে দেশের আর সব জায়গার মত, এখানকার রাস্তাঘাটও জনশূন্য , বন্ধ দোকানপাট।   এই সময়ে সেই মানুষগুলি,পথই যাদের ঘর, খাবারের জন্য হোটেল রেস্তরাঁর উচ্ছিষ্টই যাদের বেঁচে থাকার পথ, সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত তারাই। তাদের কথা ভেবে একদল উদ্যমী তরুন এগিয়ে এসেছেন। ওঁদের সংস্থার নাম ‘ফিনিক্স ফাউন্ডেশান’। স্থানীয় বাসিন্দারা কেউ না কেউ প্রতিদিন পালা করে ডাল ভাত তরকারী ডিম ইত্যাদি যত্ন করে রান্না করে তুলে দেন...

Please reload

সাম্প্রতিক পোস্ট
Please reload

Archive
Please reload

A N  O N L I N E  M A G A Z I N E 

Copyright © 2016-2019 Bodh. All rights reserved.

For reprint rights contact: bodhmag@gmail.com

Designed, Developed & Maintained by: Debayan Mukherjee

Contact: +91 98046 04998  |  Mail: questforcreation@gmail.com