26.04.2020

লকডাউন সময়ে কলকাতার দক্ষিণে  এক ছোট ব্যবসায়ীর দুর্দশার কথা  উল্লেখ করছি। বছর ত্রিশের ছেলেটি অনেক সংগ্রাম করে একটি ছোট জুতোর দোকান দাঁড় করায়। দুই ভাইয়ের একজন দাদাকে ব্যবসায় সাহায্য করে। বাবা ও মা, দুই ভাই আর বউ-ছেলে নিয়ে সাত জনের পরিবার। দোকানের আয়ে সংসার মোটামুটি চলে যাচ্ছিল। লকডাউন আয়ের পথ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু ছেলেটির মনের জোর অটুট ছিল।   ছেলেটির জীবনে বিপর্যয় নেমে আসে। ৬৫ বছরের মা করোনায় আক্রান্ত হয়। সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে, সেখানে জোটে অবহেলা। বাধ্য হয়ে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে মাকে। ই...

দেশজুড়ে লকডাউন। নাসাবন্দী অবস্থা হতে চলেছে অর্থনীতির। নোট বাতিলের ধাক্কা সামলাতে  না সামলাতে জিএসটি, একের পর এক ব্যাংক চিটিং ও কেলেঙ্কারি, এসবের যুগপৎ প্রতিক্রিয়ায় ভারতীয় অর্থনীতির বৃদ্ধির হার যখন কমতে কমতে সাড়ে চার শতাংশের আশে পাশে ঘুরছে, তখনই এই করোনা থেকে বাঁচতে দেশজুড়ে  লকডাউন বিশাল ধাক্কা দিয়ে যাবে। কতখানি ধাক্কা সেটা জানতে বুঝতে মাস ছয়েক লাগবে।আশঙ্কা, আনুমানিক ২ শতাংশ বৃদ্ধির হার কমবে!

নোট বাতিলের মতই বড় সমস্যা এই লকডাউন। নোট বাতিল  হলেও সেই সময় অর্থনীততে  নিত্য লেনদেন চলত। ন...

করোনা এক অদৃশ্য শত্রু হঠাৎই এসে আমাদের বুঝিয়ে দিল অনেক কিছু,প্রকৃতির কাছে আমরা অর্থাৎ মানুষ সম্প্রদায় কতোটা নগন্য প্রমান করে দিল।সমগ্র বিশ্ব গৃহবন্দী, আটকে গেছে প্রানের স্পন্দন, রাস্তা ঘাট শহর বাজার জনশূন্য,

মৃত্যুভয় তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে আমেরিকা থেকে ইতালি ইতালি থেকে ইরান ইরান থেকে স্পেন ভারত তথা বিশ্বের যাবতীয় উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশকে।

বন্ধ কল কারখানা অপিস আদালত যাবতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

  সব চেয়ে বড়ো সমস্যা  ভারতবর্ষে

বিভিন্ন বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় এবং বিশ্ব বিদ্যালয়ে বিভিন্ন ধরনের পরিক্ষা স্থগ...

"মহামারি" -এই শব্দটার সাথে গোটা বিশ্ব  পরিচিত। কারণ বিভিন্ন সময়ে এই শব্দটি সারা বিশ্বে ত্রাসের সৃষ্টি করেছে। যখনই রোগ নিয়ে এসেছে, তখনই শ্মশান করে দিয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। দেশ -কাল - গণ্ডি সমস্ত কিছু  একাকার হয়ে গিয়েছিলো। শুধু বিশ্ব জুড়ে একটাই শব্দ "মৃত্যু"! এর প্রমাণ রেখে গেছে সময় , দেখেছে ভারত সহ গোটা বিশ্ব- কালাজ্বর, কলেরা, প্লেগ মারণ রোগের আক্রমণ। আবার সেই দিন ফিরে এলো ভয়ংকর কোভিড-১৯ মারণ ব্যাধি। ২০২০ সালের গোটা মার্চ মাসজুড়ে মৃত্যু , ভয়, আর আতঙ্কের মানচিত্র। 

      ইতিমধ্যেই বিশ্বের ব...

🔴  ভাইরাসের নাম - "সারস"।

     উপসর্গ -- শ্বাসকষ্ট।

    আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার 

    সম্ভবনা -- ৩৭%...

🔴  ভাইরাসের নাম -- "জীকা"। 

   উপসর্গ -- চুলকানি,, গাঁটে ব্যাথা।

  আক্রান্তের মৃত্যু সম্ভবনা -- ২৫%..

🔴  ভাইরাসের নাম - "ইবোলা"।

  উপসর্গ - জ্বর ,,শারীরিক দূর্বলতা।

  মৃত্যুর সম্ভবনা -- ৯২%...

🔴  ভাইরাসের নাম - "মারবার্গ"।

  উপসর্গ - হজমের গোলমাল,

  এবং,, দশ দিনের মধ্যে মৃত্যু।

  আক্রান্ত ব্যাক্তির মৃত্যু 

   সম্ভবনা -- ৯০%.....

🔴  ভাইরাসের নাম -- "নীপা"।

  উপ...

.

চীনের উহানের তামপাত্রা ছিল ১৫ ডিগ্রির নিচে ও কাছাকাছি।

২. ইরানে ১০ ডিগ্রির কাছাকাছি।

৩. দক্ষিণ কোরিয়ায়ও ১০ ডিগ্রির অনেক নিচে।

৪. ইতালিতে ১৫ ডিগ্রির নিচে।

অর্থাৎ মোটামুটি ১৫ ডিগ্রির উপরে তাপমাত্রা আছে এমন ক্ষেত্রে করোনা খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারেনি।

-কত তাপমাত্রা নিরাপদ?

এ পর্যন্ত প্রায় সব গবেষণা ও বিশেষজ্ঞরা মোটামুটি একমত যে, তাপমাত্রা ২১-২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে করোনা ভাইরাস টিকতে পারে না। যেমন;

১. হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. প্রফেসর জন নিকোলস বলেছেন, সূর্যের আলো, তাপমাত্রা এবং আর্দ্রতায় করোনা টিকতে প...

আসাম আন্দোলনে ও  কিছু ভূমিকাঃ

প্রসঙ্গত বলাযেতে পারে বর্তমানের(২০১৭-থেকে আজ পর্যন্ত) আসাম প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের মধ্যে সঠিক তথ্য সচেতনতা সৃষ্টি্র উদ্যোগ গ্রহণ করি। কলকাতাসহ সারা ভারতে আন্দোলনের ক্ষেত্রে আমাদের সংগঠন সর্ব ভারতীয় বাঙলা ভাষা মঞ্চ ও ঐকতান গবেষণা পত্র তার যে  বাঙালি প্রেমী ও মানবিক দায়িত্ব পালন করেছেমনেহয়তাও ইতিহাস ভুলে যেতে পারবেনা । কারন ১২ই জানুয়ারি ২০১৮  থেকে লাগাতার ভাবে আজ পর্যন্ত সে কাজে তারা নিবেদিত। এবং এর জন্য আসাম-বিহার-আন্দামান-দিল্লিসহ সারা ভারতব্যাপী প্রচার ও প্রতি...

দিল্লীর নির্বাচনী ফল তো সকলেই জানেন। ফল নিয়ে কাটাকুটি খেলা, নাচ, মান-অভিমান অনেক হয়েছে। দেশের তাতে কী লাভ বা ক্ষতি হল? সেটা বুঝতে আর একটু কাটাকুটি খেলা  খেলতেই হয়। 

আপ মেয়েদের ভোট অনেকটা পেয়েছে, কংগ্রেস পায়নি।  বিজেপিও ভোট কিছু তেমন পায়নি, তবে তাদের কথা না হয় পরে আলোচনা করব।

 কংগ্রেসের হাল এমন হল কেন?  

শাহিনবাগের প্রতি অকুন্ঠ ও কার্যত শর্তহীন সমর্থন জানিয়েছে কংগ্রেসই, আপ নয়। তবু, কেন কংগ্রেস তাদের ভোট পেল না? নির্বাচন কেবল তো নাগরিকত্ব আইন নিয়ে নয়।

সম্প্রতি(১৭/২), সুপ্রিম কোর্ট তার...



বেসরকারি টেলিকম সংস্থাগুলির উদ্দেশে শীর্ষ আদালতের রায় প্রসঙ্গে কেন্দ্রের এক অফিসারের চিঠি ঘিরে তোলপাড় সুপ্রিম কোর্ট। রাগে গজরাতে গজরাতে বিচারপতি অরুণ মিশ্র বললেন, তা হলে আমরা সুপ্রিম কোর্টের কাজ গুটিয়ে ফেলি? আমাদের আর থাকার দরকার কী? দেশ ছেড়ে চলে যাওয়াই ভালো। সুপ্রিম কোর্ট টেলিকম মন্ত্রকের ওই অফিসারকে অবিলম্বে আদালতে হাজির করানোর নির্দেশ দিয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে দ্রুত তদন্ত করতে বলা হয়েছে। আদালত অবমাননার নোটিসও জারি করা হয় তাঁর বিরুদ্ধে।
গত অক্টোবর মাসে ভোডাফোন, এয়ারটেল-সহ বেসরকারি টেলিকম সংস্থাগ...

'ঝাড়' মানে ঝোপ। আর 'খন্ড' মানে ভূমি। ঝোপে ঝাড়ে ধাক্কা খেয়ে ও বিজেপি  খুব বেশি সুবিধা করতে পারছে না, প্রমাণিত হইলো।

ভারতের প্রাকৃতিক ও খনিজ সম্পদের ৪০% ঝাড়খন্ডে। কী অদ্ভুত, এই রাজ্যেই ৪০% মানুষ আবার দারিদ্র্য সীমার নিচে। শাল পিয়ালের বন, লাল মাটির রাস্তা ধরে এরকমই দারিদ্র্য সীমার নিচে অবস্থিত একটি আদিবাসী গ্রাম। গ্রামে ৪০টা পরিবার থাকে। ট্রানজিস্টার আর জিও-র সিম দুটোই রাষ্ট্র দিয়েছে সহজে। কিন্তু চাল আনতে আজ ও পান্তা ফুরোয়। ঠাকুরদার সময় গ্রাম আরো গভীরে ছিল শোনা যায়, কিন্তু সরকার সব অরণ্য অঞ্চল বেচে...

রাম-বাম-গ্যাং গরল সোরগোল তুলেছে যে,এনআরসি (জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরণ)   এবং

(নাগরিক  সংশোধনী আইন)  রাজ্য সরকার আটকাতে পারেনা! 

বাস্তবে পারে! কারন, কোন কেন্দ্রীয় আইন রাজ্যে কার্য্যকর করতে হলে রাজ্যকে প্রথমে 'নোডাল এজেন্সি' গড়তে হয়, এবং নোডাল এজেন্সি মারফৎ সেই কেন্দ্রীয় আইনটিকে রাজ্য 'রুল' এ পরিনত করতে হয় ॥

নোডাল এজেন্সি গড়া এবং রুল এ পরিনত করার এক্তিয়ার যেহেতু সম্পূর্ণ ভাবেই  সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের, তাই রাজ্য না চাইলে তা হবেনা । 

কেন্দ্রীয় সরকারের এখানে নাক গলানোর কোন অধিকার নেই! 

কেন...

নিশানা তিন তিনটি দেশ
যারা শুরুতেই নিজেদেরকে জানতে চেয়েছিলো
কেউ নিজের তৈরি গাছের গতিপথ দেখে
কিংবা কেউ  আবার কবরের পাশে
আবার কেউ পতকার রঙ দেখে

তিন তিনটি দেশ
সহসা  গোলা বারুদের গন্ধ
কুয়াশায় ঢাকে আকাশ
খোলা রাস্তায় পাশাপাশি  লাশের পর লাশ
গাছের নীচে, কবরের পাশে, পতাকায়
ভেসে যায় রক্ত

তিন তিনটি দেশ

পরিচয় হারালেও
মাটিতেই পড়ে থাকে

নাগরিকত্ব চিহ্ন।


The mid August of 1947 gave birth to two different states, India and Pakistan. The background story is generally told in similar fashions in both the countries but in different moods. In Pakistan, the credit is afforded to Muhammed Ali Jinnah and his associates of the Indian Muslim League. They are praised for their consistent promotion of the theory of a Muslim state within the erstwhile territory of colonial India. Jinnah is termed as ‘Quaid-i-Azam’ and the Father of Pakistan. In India they a...

ধর্ষণের মতো জঘন্য নারকীয় ঘটনা এখনও অবলীলাক্রমে ঘটে চলেছে। পাশাপাশি 'বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও' স্লোগানও দেশময় চলছে। আগের সময়ের চেয়ে মেয়েদের অবস্থানগত ভাবে অনেকটা বদল ঘটেছে। এখন মেয়েদের অনেক বেশি বাইরের জগতের সঙ্গে মিশতে হয়। তারা চাকরি করে বা ব্যবসা করে। পেশাগত কারণেও  রাতবিরতে বেরতেও হয়। কিন্তু ইদানিং ধর্ষণ ও নারী নিগ্রহের ঘটনা যে ভাবে বেড়ে চলেছে তা প্রাক-আধুনিক সময়কেও হার মানাবে। শুধু ধর্ষণই নয়, ধর্ষণে বাধা দিলে খুন করে পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। সাম্প্রতিক উদাহরণ প্রিয়াঙ্কা রেড্ডি। হায়দরাবাদের বছর ছাব্ব...

ভারতকে NRC শব্দটা শিখিয়েছিল আসাম। প্রথম শিখিয়েছিল ১৯৫০ সালে। আর আবার তার নতুন পাঠ নিতে শুরু করল ২০১৬ সালে। দু বছরের মধ্যেই NRC নিয়ে ভীতি ছড়ানো আর NRC-র ভয়ে রাতের ঘুম চলে যাওয়া, পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারত মোটামুটি এই দুটো ক্যাম্পে ভেঙে গেছে। মাঝখানে অবশ্য নির্বিকল্প ব্রহ্মচৈতন্য স্বরূপ একটা বড় অংশ আছে, যাদের কোনো কিছুতেই হেলদোল হয় না। আসামের ক্ষেত্রে যার নাম NRC, অবশিষ্ট ভারতের ক্ষেত্রে তার নাম হল NRIC। নাগরিকত্ব আইনে ২০০৩ সালের সংশোধনীর মাধ্যমে এই শব্দ বা ধারণাটাকে ঢোকানো হয়েছিল। কেন্দ্রে তখন প্রধানমন্...

Please reload

সাম্প্রতিক পোস্ট
Please reload

Archive
Please reload

A N  O N L I N E  M A G A Z I N E 

Copyright © 2016-2019 Bodh. All rights reserved.

For reprint rights contact: bodhmag@gmail.com

Designed, Developed & Maintained by: Debayan Mukherjee

Contact: +91 98046 04998  |  Mail: questforcreation@gmail.com