রক্তদান সম্পর্কিত কিছু নতুন নিয়মাবলী

 

রক্তদান সম্পর্কিত কিছু পুরোনো পোস্টে বারবার যে কথাটার উল্লেখ করেছি আমি, সেটা হল রক্তদানের আগে donor screening বা নির্দিষ্ট কিছু প্রশ্নাবলীর মাধ্যমে রক্তদাতা চিহ্নিতকরণ--- যে প্রক্রিয়াটি যথাসম্ভব ত্রুটিমুক্ত হলেই safe blood অর্থাৎ সুরক্ষিত রক্তসঞ্চালনের ব্যাপারে অনেকটা নিশ্চিত হওয়া যায়। 

 

   স্বভাবতই, এ বিষয়ে, যে চিকিৎসক রক্তদান শিবিরে দাতাদের check up বা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন, তাঁর দায়িত্বই সর্বাধিক। তবে, বিভিন্ন রক্তদান শিবিরের আয়োজক এবং individual রক্তদাতার দায়িত্বও এ ব্যাপারে কম নয়। 

 

    সম্প্রতি, জাতীয় রক্তসুরক্ষা পর্ষদ বা National Blood Transfusion Council, এই রক্তদান সম্পর্কে কিছু নতুন নিয়মাবলী ঘোষণা করেছে, যা সারা ভারতেই প্রযোজ্য। 

চিকিৎসাবিজ্ঞানের জটিল কার্যকারণের মধ্যে না ঢুকেও, গড়পড়তা যে নিয়মগুলি organiser এবং donor, দুই পক্ষেরই জানা উচিৎ, সেগুলি সম্পর্কে সংক্ষেপে জানাবার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলাম।

 

1)সাধারণভাবে, 18 থেকে 65 বছর বয়স পর্যন্ত রক্তদান করা যাবে। কিন্তু দাতা যদি প্রথমবারের জন্য রক্তদান করেন, তাহলে, বয়স 60 অতিক্রম করলে চলবে না। Age of first donor should not exceed 60years.

 

2)দুটি রক্তদানের মধ্যে gap বা অন্তর, পুরুষদের ক্ষেত্রে 90 দিন বা তিনমাস, এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে 120 দিন বা চারমাস হতে হবে।

Single donor platelet এর ক্ষেত্রে, সর্বাধিক একটি সপ্তাহে দুইবার এবং একটি বছরে সর্বোচ্চ 24 বার দান করা যাবে। 

 

3)ব্লাড প্রেশার সর্বোচ্চ 160/100 এবং সর্বনিম্ন 110/60 হলে রক্ত দেওয়া যাবে। 

প্রেশারের ওষুধ চললেও রক্তদান করতে বাধা নেই, কিন্তু---

ক)গত চার সপ্তাহের মধ্যে ওষুধ পরিবর্তন করে থাকলে কিংবা

খ)গত চার সপ্তাহের মধ্যে ওষুধের ডোজে তারতম্য হলে কিংবা

গ)গত চার সপ্তাহের মধ্যে ওষুধের সংখ্যা ডাক্তারের দ্বারা বাড়ানো হলে,

রক্ত দেওয়া যাবে না।

 

4)ডায়াবিটিস থাকলে রক্ত দিতে চাইলে, সর্বশেষ রক্তপরীক্ষার রিপোর্ট আর ওষুধের প্রেসক্রিপশন সঙ্গে রাখতে হবে। একই কথা থাইরয়েডের রোগ থাকলেও প্রযোজ্য।

 

5)জেলবন্দি কয়েদী রক্ত দিতে পারবেন না।

 

6)রূপান্তরকামী বা তৃতীয় লিঙ্গের কেউ, রক্ত দিতে পারবেন না। Transgenders and hermaphrodites cannot donate blood.

 

7)শারীরিক প্রতিবন্ধকতা রক্ত দেওয়ার অন্তরায় নয়। যদি তাঁর অন্যান্য কোনো রোগ না থাকে আর হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ঠিক থাকে, যে কোনো শারীরিক প্রতিবন্ধী রক্ত দিতে পারেন। 

 

8)কোনো মানসিক প্রতিবন্ধী রক্ত দিতে পারবেন না।

 

9)ছোটখাটো অপারেশন বা দাঁত তোলার পরে ছ'মাস রক্ত দেওয়া যাবে না।

বড় অপারেশন, টাইফয়েড, জন্ডিসের পরে একবছর রক্ত দেওয়া যাবে না।

ম্যালেরিয়া হলে তিনমাস রক্ত দেওয়া যাবে না।

ডেঙ্গু বা চিকুনগুনিয়া হলে ছ'মাস রক্ত দেওয়া যাবে না।

কুষ্ঠ রোগাক্রান্ত ব্যক্তি কোনোদিনই রক্ত দিতে পারবেন না।

 

10)শরীরে কোথাও ট্যাটু করালে, ছ'মাস রক্ত দেওয়া যাবে না।

 

11)কোলেস্টেরল কমানোর ওষুধ, ইউরিক  অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণের ওষুধ, ব্যথার ওষুধ বা জ্বরের ওষুধ খেলে রক্ত দিতে বাধা নেই।

Antiobiotic খেলে কোর্স শেষ করার বাহাত্তর ঘন্টার আগে রক্ত দেওয়া যাবে না।

 

12)হেপাটাইটিস বি এর টিকা নেওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যে রক্ত দেওয়া যাবে না।

টিটেনাস টক্সয়েড ইনজেকশন নেওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যে রক্ত দেওয়া যাবে না।

কুকুরের বা অন্য কোনো জন্তুর কামড়ের পরে,   জলাতঙ্কের টিকা নিলে, এক বছর রক্ত দেওয়া যাবে না।

 

13)মহিলারা ঋতু চলাকালীন রক্ত দিতে পারেন, যদি বেশি স্রাব না হয়, এবং হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ঠিক থাকে।

 

14)মহিলারা সন্তানকে স্তন্যপান করালে রক্ত দিতে পারবেন না। 

গর্ভপাতের তিনমাসের মধ্যে রক্ত দেওয়া যাবে না।

প্রসবের এক বছরের মধ্যে রক্ত দেওয়া যাবে না।

 

15)মদ্যপ ব্যক্তি রক্তদান করতে পারবেন না।

মদ্যপানের বারো ঘন্টার মধ্যে রক্ত দেওয়া যায় না।

Regular and habitual drinkers cannot donate blood.

 

16)উপবাসী অবস্থায় রক্ত দেওয়া যাবে না।

আবার পূর্ণ উদরেও রক্ত দেওয়া যাবে না। হালকা কিছু খেয়ে রক্ত দেওয়া উচিত। ভরাপেট থাকলে অন্তত দুই ঘন্টা অপেক্ষা করে তবেই রক্ত দিতে হবে।

 

17)কোনো বিদেশী নাগরিকের রক্ত নেওয়া যাবে না। কারণ, তাঁর স্থায়ী বাসস্থান সম্পর্কে সঠিক তথ্য বেশিরভাগ সময়েই জানা সম্ভবপর হয় না। যদি তাঁর বাসস্থান এমন কোনো জায়গায় হয়, যেখানে সংক্রামক রোগের প্রাদুর্ভাব রয়েছে(endemic areas of communicable diseases), তবে রক্তসুরক্ষার সঙ্গে আপস করা হয়ে যাবে।

 

    সমস্ত কিছুই এই সংক্ষিপ্ত পরিসরে আলোচিত হয়েছে বলে মনে করি না। তবু, কিছু ধোঁয়াশা পরিষ্কার করার চেষ্টা হয়েছে, এই সাম্প্রতিক নির্দেশাবলীতে।

 

   তাই, এই নতুন নিয়মাবলী সকল বন্ধুদের সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার জন্য এই দীর্ঘ, কিছুটা ক্লান্তিকর পোস্টের অবতারণা করলাম।

Share on Facebook
Share on Twitter
Please reload

জনপ্রিয় পোস্ট

I'm busy working on my blog posts. Watch this space!

Please reload

সাম্প্রতিক পোস্ট
Please reload

A N  O N L I N E  M A G A Z I N E 

Copyright © 2016-2019 Bodh. All rights reserved.

For reprint rights contact: bodhmag@gmail.com

Designed, Developed & Maintained by: Debayan Mukherjee

Contact: +91 98046 04998  |  Mail: questforcreation@gmail.com